বশেমুরবিপ্রবিতে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা

স্টাফ রিপোর্টার।।

গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার সকাল ১১.০০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের ৫০১নং কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ^বিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, এমপি।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান, আইন অনুষদের ডিন ও প্রক্টর ড. মোঃ রাজিউর রহমান, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মোঃ কামরুজ্জামান, স¦াধীনতা দিবস হলের প্রভোস্ট মোঃ আব্দুর রহমান প্রমুখ। আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট মোঃ ফায়েকুজ্জামান মিয়া।

আলোচনা সভার মুখ্য আলোচক মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন তাঁর বক্তব্যে জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন অত্যন্ত প্রজ্ঞাবান ও মানব দরদী নেতা, মানুষকে কিভাবে কাছে টেনে নিতে হয় তা তিনি জানতেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দুইটা, স্বপ্ন দুটো হলো- বাংলাকে স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রে পরিণত করা এবং এদেশকে সোনার বাংলায় গড়ে তোলা। তিনি সকলকে স্বাধীনতার চেতনা ও মুজিবের আদর্শকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানান।

আলোচনা সভার সভাপতি ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুব বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যদি স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করতে না পারতেন তাহলে এই দেশ ধ্বংসের দারপ্রান্তে চলে যেত। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশে ফিরে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ এগিয়ে নিতে দেশ ও দেশের বাইরে সংগ্রাম করেছেন। তিনি আরো বলেন বঙ্গবন্ধুকে ভালবাসা মানে দেশকে ভালোবাস মানো আর দেশকে ভালোবাসা নিজেকে ভালবাসা। তিনি সকলকে জাতির পিতার আদর্শ ধারণ করার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here