সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান শেখ সেলিম এমপি-র

Sheikh Salim MP calls for unity to deal with all conspiracies

immage 1000 01 42

দলের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকা ষড়যন্ত্রকারীরা যাতে সফলকাম হতে না পারে তার জন্য দলের নেতা-কর্মীদেরকে সজাগ থাকার আহবান জানিয়ে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছিল তারা তাঁকে হত্যার আগে বিভিন্নভাবে কাছে আসার চেষ্টা করেছিল। ঘনিষ্ট হবার চেষ্টা করেছে। অথচ তারাই এক সময়ে জাতির পিতাকে স্বপরিবারে তারাই হত্যা করেছিল।

তিনি আজ মঙ্গলবার বিকেলে গোপালগঞ্জ পৌর পার্কের মুক্ত মঞ্চে আয়োজিত গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সদর পৌরসভা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য দান কালে এ কথা বলেন।

immage 1000 02 20

সদর ‍উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী লিয়াকত আলী লেকুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, এস,এম কামাল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাসমত আলী সিকদার চুন্নু প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। এর আগে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে শেখ সেলিম এমপি বলেছেন, বিএনপি কোন দিন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসতে পারবে না। আওয়ামী লীগ, মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি যদি ঐক্যবদ্ধ থাকে আর যদি শেখ হাসিনা এবং ত্যাগী নেতারা জীবিত থাকে তাহলে বাংলাদেশেকে সারা জীবন মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি পরিচালিত করবে। দরকার হলে পাকিস্তান প্রেমিদের বাক্সে ভরে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেয়া হবে। বাংলাদেশে বসে পাকিস্তানে কথা চিন্তা করবেন আর পাকিস্তানে বৃষ্টি হলে বাংলাদেশে ছাতা ধরবেন এটা করতে দেয়া হবে না। তিনি আওয়ামী লীগ নেতার্মিদেরকে সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান।

immage 1000 03 12

নেতার্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়ে শেখ সেলিম আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু ও তার আদর্শকে যদি ভালবাসেন তাহলে ভোগের নয় ত্যাগের রাজনীতি করবেন। নিজেদের মধ্যে গোলমাল করবেন না। যারা গোলমাল করবে তাদের আওয়ামী লীগে স্থান হবে না। বিএনপি-জামাত ষড়যন্ত্র করছে, এ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে হবে। আগামী নির্বাচনের আগে স্বাধীনতা বিরোধী, সন্ত্রাসী ও জঙ্গী এদের কোন আত্মীয় স্বজনদের আশ্রয় দেয়া যাবে না।

এর আগে বিভিন্ন স্থান থেকে মিছিল নিয়ে সম্মেলন স্থলে হাজির হন নেতার্মীরা। কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে ওঠে সম্মেলন স্থল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here