গোপালগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে  মাদক বিরোধী শোভাযাত্রা  ও সেমিনার

Anti-drug procession and seminar at Gopalganj

immage 1000 01 17

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি:
গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) মাদক বিরোধী সংগঠন উপলব্ধির উদ্যোগে মাদক বিরোধী র‍্যালি ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র মাদক বিরোধী সামাজিক সংগঠন (উপলব্ধি), মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর গোপালগঞ্জ জেলা শাখা ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সমন্বয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে সকাল ১০.৩০ এ র‍্যালি শুরু হয়। র‍্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রাঙ্গন প্রদক্ষিন করে একাডেমিক ভবনে এসে শেষ হয়।

র‍্যালি শেষে সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিনার রুমে মাদক বিরোধী সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।এতে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এস কে ইফতেখার মোহাম্মদ উমায়ের(সহকারী পরিচালক, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর, গোপালগঞ্জ জেলা শাখা)৷ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রক্টর ড.মোঃরাজিউর রহমান৷ এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক, শিক্ষার্থী উপলব্ধির নেতাকর্মী অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারে বক্তারা মাদকের ভয়াবহতা ও কুফল নিয়ে আলোচনা করেন। মাদকের ভয়াবহতা সম্পর্কে আলোচনা করতে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোঃ রাজিউর রহমান বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মাদক সংশ্লিষ্ট অভিযোগ পেলে আমরা প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেব।মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান সর্বদা কঠোর। এক্ষেত্রে আমরা জিরো টলারেন্স নীতিতে হাটব।তরুন প্রজন্মকে মাদকের এ ভয়াবহতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।”

শুভেচ্ছা বক্তব্যে উপলব্ধির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোঃ রাশিদুল ইসলাম বলেন, “বর্তমান তরুন প্রজন্ম আধুনিকতার নামে সিগারেট খাচ্ছে।তারা এটাকে মাদক বলতে নারাজ অথচ মাদকের প্রথম ও শক্তিশালী ধাপ হচ্ছে সিগারেট যা পরবর্তীতে গাজা,ইয়াবা ও অন্যান্য নেশায় আসক্ত করে ফেলে মাদকাসক্ত লোক দেশ ও জাতির বোঝা। 
এসময় উপলব্ধির লক্ষ্য উদ্দ্যেশ্য সম্পর্কে তিনি বলেন, তরুন প্রজন্ম যাতে মাদকের অন্ধকার পথে যেতে না পারে সেজন্য ১৯ অক্টোবর ২০১৯ সালে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে উপলব্ধি নামে একটি সংগঠন দাড় করাই। সংগঠনটির প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই আমরা মাদক বিরোধী নানামুখী প্রচার-প্রচারনা চালিয়েছি।তরুন প্রজন্মকে আলোর পথে ফিরিয়ে আনাই আমাদের মুল লক্ষ্য। এ লক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।”

এ বিষয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এসকে ইখতেখার মোহাম্মদ উমায়ের বলেন,“ ইদানিং অনেক ধরনের সহিংসতা দেখতে পাই যা কিনা কোনো সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষ দ্বারা করা সম্ভব না৷ কিন্তু হচ্ছে৷ এরা আসলে সুস্থ না এরাই মাদকাসক্ত৷ আমাদের উচিত মাদককে এড়িয়ে চলা বর্জন করা৷”
এসময় তিনি পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় ঘটে যাওয়া কিছু অপ্রীতিকর ঘটনার উদাহরন টেনে মাদক বর্জন করা এবং এর ক্ষতিকর দিক তুলে ধরেন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here